সোমবার, ০১ জুন ২০২০ | ১৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
জাতীয়

বইমেলায় অপ্রতুল ভ্রমণ বিষয়ক বই

নিজস্ব প্রতিবেদক
২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০

অজানাকে জানা আর অদেখাকে দেখার কৌতূহল তো সহজাত। আর তাই ভ্রমণ পিপাসু অনেক পাঠকই ডুবে থাকেন বইয়ের কালো অক্ষরে। এ যেন সশরীরে না গিয়েও মনে মনে ঘুরে আসা কোনো অজানায়।

পাঠকরা বলেন, বইয়ের ভেতর দিয়ে ঘুরে আসা। এ কারণেই ভ্রমণের বই পড়তে ভালো লাগে। সব জায়গায় যাওয়ার সাধ্য সবার হয় না। তবে ভ্রমণ কাহিনীর মাধ্যমে সেটা সম্ভব। উপন্যাসের বই অনেক বের হলেও ভ্রমণ কাহিনী তেমন একটা বের হয় না।

পাঠকের চাহিদা সত্ত্বেও প্রতি বছরই প্রাণের মেলায় ঘাটতি থেকে যায় ভ্রমণ বিষয়ক বইয়ের। এ নিয়ে পক্ষ-বিপক্ষে নানা মত লেখক ও প্রকাশকের।

এ প্রসঙ্গে প্রকাশক শাহাদাদ হোসেন বলেন, ভালো পাণ্ডুলিপি সশরীরে পেলে অবশ্যই তা আমরা প্রকাশ করব। তবে সে মানদণ্ড থাকতে হবে বইয়ের। 

নানা সীমাবদ্ধতার ঘরকুনো ভ্রমণ পিপাসুরা অবলম্বন খুঁজে ফেরেন বইয়ের পাতায়।  এবারের বইমেলায় অন্যান্যবারের মতো ভ্রমণ বিষয়ক বইয়ের রয়েছে পাঠকপ্রিয়তা। 

এ বছর এ পর্যন্ত ৭২টি ভ্রমণগ্রন্থ প্রকাশিত হয়েছে। বইগুলোর বিক্রি বেশ ভালো হয় বলে জানিয়েছেন প্রকাশকরা। এনিয়ে এবারের বইমেলায় বেশ সাড়া পড়েছে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের লেখা ৩য় গ্রন্থ ‘আমার দেখা নয়াচীন’। বাংলা একাডেমি থেকে প্রকাশিত এ ভ্রমণ গ্রন্থটি ইতোমধ্যে ১ম সংস্করণের ২০ হাজার কপি বিক্রি হয়ে ২য় সংস্করণের বিক্রি চলছে।

এ ছাড়া অমর একুশে গ্রন্থমেলায় প্রকাশিত হয়েছে লেখক, সাংবাদিক, আবৃত্তিশিল্পী এবং করপোরেট ব্যক্তিত্ব উদয় হাকিমের ভ্রমণসাহিত্য ‘রহস্যময় আদম পাহাড়’। বইটি শ্রীলঙ্কার অন্যতম দর্শনীয় স্থান অ্যাডাম’স পিককে উপজীব্য করে লেখা। এ নিয়ে লেখকের প্রকাশিত বইয়ের সংখ্যা দাঁড়ালো ৭টি। ‘রহস্যময় আদম পাহাড়’ বইটিতে লেখকের ভ্রমণ অভিজ্ঞতার পাশাপাশি অ্যাডাম’স পিক-এর ওপর গুরুত্বপূর্ণ তথ্য রয়েছে। শুধু তাই নয়, তথ্যগুলো লেখক নিজস্ব দৃষ্টিভঙ্গীতে সাবলীল গদ্যে বিশ্লেষণ করেছেন। লেখকের শ্রীলঙ্কা ভ্রমণের চমৎকার বর্ণনার সঙ্গে বইটিতে রয়েছে নজরকাড়া আলোকচিত্র। বইটি অমর একুশে গ্রন্থমেলায় পাওয়া যাচ্ছে অনিন্দ্য প্রকাশের প্যাভিলিয়নে। এখান থেকে পাঠক লেখকের আরেকটি জনপ্রিয় ভ্রমণকাহিনি ‘সুন্দরী জেলেকন্যা ও রহস্যময় গুহা’ কিনতে পারবেন। ১৪৪ পৃষ্ঠার বইটির মূল্য ৩০০ টাকা। প্রচ্ছদ এঁকেছেন বাইজিদ আহমেদ।

আগামী প্রকাশনীর প্রকাশক উসমান গণি বলেন, ভ্রমণ সাহিত্য দিন দিন জনপ্রিয় হয়ে উঠছে। পাঠকরা আগ্রহের সঙ্গে অজানাকে জানতে ভ্রমণ সাহিত্যের প্রতি ঝুঁকছে। ভ্রমণের বইয়ে যদি সঠিক তথ্য ও রসবোধ থাকে তাহলে পাঠকরা তা সমাদরে গ্রহণ করেন।

কথা প্রকাশের ব্যবস্থাপক ইউনুছ আলী বলেন, পাঠকের কাছে ভ্রমণ সাহিত্যের রয়েছে বিশেষ কদর। প্রচুর পাঠক রয়েছেন যারা উপন্যাস বা কবিতা পছন্দ করেন না কিন্তু ভ্রমণের বই পেলেই কাছে টেনে নেন। তবে বইটি মানসম্মত হবে। এবারের গ্রন্থমেলায় উল্লেখযোগ্য ভ্রমণগ্রন্থের মধ্যে কথা প্রকাশ থেকে এসেছে খন্দকার মাহমুদুল হাসানের ‘দার্জিলিংয়ে দক্ষযজ্ঞ’ ও সালেক খোকনের ‘দেশে বেড়াই’, জলকথা প্রকাশ থেকে এসেছে জুম্মি নাহদিয়ার ‘ব্যাকপ্যাকে পৃথিবী, আগামী প্রকাশনী থেকে এসেছে ড. চিত্তরঞ্জন দাশের ‘দেশ দেশান্তর’, ইশতিয়াক আলমের ‘শান্তিনিকেতন হয়ে কাশ্মীর’, ও সুধাংশু শেখর বিশ্বাসের ‘ঘুরে দেখা আমেরিকা’, উৎস প্রকাশন থেকে মঈনুস সুলতানের ‘মেকংপাড়ের মন্দির-মুগ্ধ লোকালয়’, মোহাম্মদ মুসলিম চৌধুরীর ‘নানা দেশ নানা মানুষ’ ও মোহাম্মদ ইলিয়াস আলীর ‘গ্রিসের পথে পথে’, ইত্যাদি গ্রন্থ প্রকাশ থেকে শেখ নেছারুদ্দিন আহমেদের ‘পৃথিবীর পথে পথে’ ও প্রশান্ত রায়ের ‘পাড়ার ঘেরা সাগর পাড়ে’, অনন্যা থেকে খান মাহবুবের ‘জানা অজানা মালয়েশিয়া’, নালন্দা থেকে ‘তানিয়া হাসানের ‘ভ্রমণকাহন’, ঐতিহ্য থেকে জাকারিয়া মণ্ডলের ‘নদী অ লের ইতিবৃত্ত’, দেওয়ান সালাউদ্দীন বাবুর ‘সাগর পাড়ে দ্বীপ শহরে’, মিজান পাবলিশার্স থেকে এনায়েত রসুলের ‘ভিনদেশের রূপকথা’ ও ‘ভ্রমণ কথা’।

ভ্রমণের জন্য নিবেদিত প্রাণ
সৌদিতে ওমরাহ যাত্রীদের প্রবেশ স্থগিত

আপনার মতামত লিখুন