রোববার, ২২ মে ২০২২ | ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
বাবা দিবস

আব্বা এবং আব্বা......

রুখসানা মিলি
২১ জুন ২০২০

আমরা দুভাই এক বোন। যখন থেকে বুঝতে শিখেছি তখন থেকেই জানি আমার আব্বা আমাকেই বেশি ভালোবাসতেন। কেবল তাই নয় তার কর্মকাণ্ডেও বোঝা যেত তিনি ভাইদের চেয়ে আমাকে বেশি ভালোবাসেন। চারটা চকলেট কিনে এনে আমাকে দুটো দিতেন, ওরা পেত একটা করে। আব্বা ছিলেন সদা হাসিখুশি একজন মানুষ। তার সরলতা, স্নেহ, ভালোবাসা এখনও প্রতি মুহুূর্তের পাথেয়। আব্বা মারা গেছেন ১২ বছর হলো। কিন্তু স্মৃতির প্রগাঢ়তা কেবল বাড়ছেই। তার স্বল্প সময়ের জীবনে যত স্মৃতি তিনি জমা করিয়ে দিয়ে গ্যাছেন তার মূল্য কতখানি তা আমার মত বাবা হারানো সকলেই হয়ত বুঝবেন। বাবার জন্য মায়ের জন্য দিবস আছে। আনুষ্ঠানিক ভাবে একটা দিন স্মরণ করা। কিন্তু তারাতো থাকেন প্রতি মুহূর্তে, প্রতিটি নিঃশ্বাসের সাথেই। দিবস থাক আর না থাক অমূল্য এই ভালোবাসা অন্য কোন জায়গা থেকে আর মেলে না। এই পাওয়া পরম পাওয়া। আমার আব্বার ভালোবাসা অদ্বিতীয় ভালোবাসা। 

তবে আমি অসাধারণ ভাগ্যবতী। বিবাহ সূত্রে আমি আর একজন আব্বা পেয়েছি এবং গর্বের বিষয় তিনিও তার তিন সন্তানের চেয়ে আমাকে বেশি স্নেহ করেন বেশি ভালোবাসেন।তিনি আমাকে আম্মা বলে ডাকেন। সন্তান হিসেবে তার কাছ থেকে আমার যত পাওয়া তা অপরিসীম। আব্বার সাথে আমি রাজনীতি, সিনেমা, বই, পারিবারিক সমস্যা, আমার বন্ধুত্ব সব কিছু নিয়েই গল্প করি। আমার সমস্ত উদ্যোগে তিনি উৎসাহিত করেন, অনুপ্রাণিত করেন। প্রতিমুহূর্তে এই বটবৃক্ষের কাছ থেকে আমাদের পরিবারের যা পাওয়া তা অতুলনীয়। আব্বাকে আল্লাহ সুস্থ রাখুন ভালো রাখুন।

বাবা দিবসে আমার আব্বা এবং আব্বার জন্য অগণিত শ্রদ্ধা আর ভালোবাসা। 

আমার জীবনের শ্রেষ্ঠ কাল্পনিক নায়ক
গড়পড়তা সাধারণ ‘বাবা’

আপনার মতামত লিখুন