শুক্রবার, ১২ আগস্ট ২০২২ | ২৮ শ্রাবণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
জাতীয়

পর্যটন বিকাশে ঢাকা-সিঙ্গাপুর পারস্পরিক অংশীদারত্ব বৃদ্ধির আশা

নিজস্ব প্রতিবেদক
০৫ আগস্ট ২০২২

পর্যটন শিল্পের বিকাশ ও সাংস্কৃতিক বিনিময়ের মাধ্যমে ঢাকা-সিঙ্গাপুরের মধ্যকার পারস্পরিক দ্বিপাক্ষিক অংশীদারিত্ব বৃদ্ধির বিষয়ে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস। 

এছাড়া বর্জ্য থেকে বিদ্যুৎ ও সার উৎপাদনে জাপানের ফুকুওকা এবং ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের মধ্যে পারস্পরিক সহযোগিতা বৃদ্ধিসহ নানান বিষয়ে অংশীদারিত্ব বেগবান করার ব্যাপারেও তিনি আশাবাদী। 

মঙ্গলবার (২ আগস্ট) সকালে সিঙ্গাপুরের জাতীয় উন্নয়ন মন্ত্রী ডেসমন্ড লি এর সাথে ডিএসসিসি মেয়র ব্যারিস্টার শেখ তাপসের প্রথম দ্বিপাক্ষিক বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।         

বৈঠকে ডিএসসিসি মেয়র ব্যারিস্টার শেখ তাপস নগর জীবনের সকল অনুষঙ্গকে সমন্বয় করে এবং বৈশ্বিক জলবায়ু পরিবর্তন বিবেচনায় নিয়ে একটি টেকসই ও জলবায়ু সহনশীল নগর ব্যবস্থাপনার লক্ষে দীর্ঘমেয়াদী মহা-পরিকল্পনা প্রণয়নে গৃহীত উদ্যোগ সম্পর্কে অবগত করেন।        

প্রতি উত্তরে জলবায়ু পরিবর্তনজনিত অভিঘাত মোকাবিলা, শহর ব্যবস্থাপনায় টেকসই ও দীর্ঘমেয়াদী মহা-পরিকল্পনা প্রণয়নের উদ্যোগকে অত্যন্ত ‘প্রশংসনীয়’ উল্লেখ করে সিঙ্গাপুরের উন্নয়ন মন্ত্রী বলেন, ‘এ ধরনের পরিকল্পনা ও তার যথার্থ বাস্তবায়ন নগর ব্যবস্থাপনার জন্য অত্যন্ত জরুরি ও প্রশংসনীয়। এর মাধ্যমে ঢাকা জলবায়ু পরিবর্তনের ক্ষতিকর প্রভাব কাটিয়ে ওঠার পাশাপাশি জলবায়ু অভিঘাত সহনশীল ও আধুনিক নগরী হিসেবেও গড়ে ওঠবে।’  

বৈঠকে পর্যটন শিল্পের বিকাশ ও সাংস্কৃতিক বিনিময়ের মাধ্যমে ঢাকা ও সিঙ্গাপুরের মধ্যকার পারস্পরিক দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক আরও জোরদার করার বিষয়ে মেয়র তাপস ও ডেসমন্ড লি. আশাবাদ ব্যক্ত করেন। এ ছাড়াও ঢাকা-সিঙ্গাপুর বাণিজ্য বৃদ্ধি সংক্রান্ত নানাবিধ বিষয় নিয়েও বৈঠকে আলোচনা হয়। 

ডিএসসিসি মেয়র এ সময় ঢাকাসহ সারাদেশের অবকাঠামো উন্নয়ন ও অর্থনীতির বিকাশে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে এগিয়ে যাওয়া বাংলাদেশের সামগ্রিক চিত্র তুলে ধরেন। জবাবে মন্ত্রী বাংলাদেশের অর্থনৈতিক অগ্রগতির ও সামষ্টিক উন্নয়নের প্রশংসা করেন।     

পরে ডিএসসিসি মেয়র ব্যারিস্টার শেখ তাপস জাপানের ফুকুওকা শহরের মেয়র সোইচিরো তাকাসিমার সাথে আলাদা দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে মিলিত হন। এসময় দুই মেয়র নগরীর বর্জ্য ব্যবস্থাপনা নিয়ে আলাপ করেন। ফুকুওকার মেয়র বর্জ্য থেকে বিদ্যুৎ ও সার উৎপাদনের পাশাপাশি অন্যান্য উপজাতসমূহের ব্যবস্থাপনা কার্যক্রমও তুলে ধরেন এবং এ বিষয়ে ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের সাথে পারস্পরিক সহযোগিতার প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন। জবাবে ডিএসসিসি মেয়র ফুকুওকার মেয়রকে ধন্যবাদ জানিয়ে দুই শহর একযোগে পারস্পরিক অংশীদারিত্ব জোরদার করার আশাবাদ ব্যক্ত করেন এবং ফুকুওকার মেয়রকে ঢাকা পরিদর্শনের আমন্ত্রণ জানান। 

ফুকুওকার মেয়র ডিএসসিসি মেয়রের আমন্ত্রণ সাদরে গ্রহণ করেন এবং ডিএসসিসি মেয়রকেও ফুকুওকা পরিদর্শনের আমন্ত্রণ জানান। ডিএসসিসি মেয়র সুবিধাজনক সময়ে ফুকুওকা সফরের প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন। 

এরপর ডিএসসিসি মেয়র সিঙ্গাপুরের আরবান রিডেভেলপমেন্ট অথরিটির সিইও প্রকৌশলী হুই লিম এর সাথেও আলাদা আরেক দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে মিলিত হন। 

এসময় অন্যান্যের মধ্যে কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ফরিদ আহাম্মদ, সিঙ্গাপুরে নিযুক্ত বাংলাদেশের হাইকমিশনার মো. তৌহিদুল ইসলাম ও ডিএসসিসি মেয়রের একান্ত সচিব মোহাম্মদ মারুফুর রশিদ খান দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন। 

গত ৩১ জুলাই সিঙ্গাপুরের মেরিনা স্যান্ডস্ বে হোটেলে ৪ দিনব্যাপী ওয়ার্ল্ড সিটিজ সামিট-২০২২ শুরু হয়। আগামী ৩ অগাস্ট ওয়ার্ল্ড সিটিজ সামিট-২০২২ এর সমাপ্তি ঘটবে। সামিটে যুক্তরাষ্ট্র, অস্ট্রেলিয়া, জাপান, দক্ষিণ আফ্রিকাসহ ৬০ দেশের মেয়ররা অংশ নিচ্ছেন।

পর্যটন শিল্পে সম্ভাবনাময় কিশোরগঞ্জের হাওরাঞ্চল
কাপড় ধোয়ার ক্ষেত্রে বিদ্যুৎ সাশ্রয়ের কার্যকরী উপায়

আপনার মতামত লিখুন