শনিবার, ০১ অক্টোবর ২০২২ | ১৬ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
জাতীয়

পতেঙ্গা সৈকতে বেড়েছে পর্যটক হয়রানি, নিয়ন্ত্রণে কিছু সিন্ডিকেট

অনলাইন ডেস্ক
১১ আগস্ট ২০২২

নোয়াখালী থেকে পরিবারের সদস্যদের নিয়ে পতেঙ্গা সমুদ্র সৈকতে বেড়াতে আসেন কয়েকজন বন্ধু। তাদেরই একজন আখতারুজ্জামান। তিনি ছেলেকে ঘোড়ায় চড়ানোর জন্য ৫০ টাকা দর ঠিক করলেও বেড়ানো শেষ হলে ১০০ টাকা দাবি করে বসেন ঘোড়া চালক।

বাধ্য হয়ে ১০০ টাকা দেয়ার পরও তাদের অকথ্য ভাষায় গালাগাল করেন ঘোড়ার মালিক আইয়ুব আলী। এতে বাগবিতন্ডা শুরু হলে দলবল নিয়ে হামলা চালায় তারা।

ভুক্তভোগীদের অভিযোগ, ঘটনা দেখেও কোন ব্যবস্থা নেয়নি ট্যুরিস্ট পুলিশ। ভু্ক্তভোগী আখতারুজ্জামান বাবু জানান, ঘটনার পর আমরা পতেঙ্গা থানায় মামলা দায়ের করি।

আরেক ভুক্তভোগী শাহাদাত হোসেন রুপ্প জানান, পর্যটকদের ওপর যদি এভাবে হামলা ও হয়রানি বৃদ্ধি পায়, তাহলে পর্যটকরা এখানে আর বেড়াতে আসবে না।

পরে পতেঙ্গা থানা পুলিশ এসে উদ্ধার করে তাদের। মূল আসামি আইয়ুব আলীকে আটক করা হলেও পালিয়ে যায় বাকীরা।

এ বিষয়ে কথা বলার জন্য সমুদ্র পাড়ে পাওয়া যায়নি কোনো ট্যুরিস্ট পুলিশকে। পরে ফাঁড়িতে গেলে সেখানেও কথা বলতে রাজী হননি ইন্সপেক্টর ইসরাফিল মজুমদার। তবে মুঠোফোনে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জানান, পর্যটকদের নিরাপত্তায় সবধরনের ব্যবস্থা নিয়েছেন তারা।

এদিকে পুরো পতেঙ্গা সৈকত এলাকায় ঘোড়ায় চড়ানোর ব্যবসা, ছবি তোলাসহ সবকিছুতেই হয়রানি হওয়ার অভিযোগ পর্যটকদের। তাদের দাবি, সবকিছুই নিয়ন্ত্রণ করছে এখানকার কিছু সিন্ডিকেট।

কোটি কোটি টাকা ব্যয়ে সৈকতের সৌন্দর্য বৃদ্ধি করা হলেও অবৈধ দখলে তা এখন মলিন। খোদ ট্যুরিস্ট পুলিশের বক্সে চলছে দোকাদারি।

চীনের স্মার্টফোন বাজারে শীর্ষ অবস্থানে ভিভো
ওয়ালটনের ডেপুটি অপারেটিভ ডিরেক্টর জীবন আহমেদের সাক্ষাৎকার

আপনার মতামত লিখুন