শুক্রবার, ১২ আগস্ট ২০২২ | ২৭ শ্রাবণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
ইভেন্ট

পর্যটন সম্ভাবনাময় হাতিয়ার নিমতলী সমুদ্রসৈকত

আরিফুর রহমান, সুবর্ণচর (নোয়াখালী)
০৮ মার্চ ২০২২

অপরূপ দৃশ্যর দেখা মেলে নোয়াখালীর বৃহত্তম উপজেলা হাতিয়ার জাহাজমারা ইউনিয়নের বিরবিরি গ্রামের বেড়িবাঁধের বাইরে নিমতলী সমুদ্রসৈকতে। প্রতিদিনই এ সৈকতের সৌন্দর্য উপভোগ করতে জেলা, উপজেলাসহ দেশের বিভিন্ন জায়গা থেকে ছুটে আসছেন হাজার দর্শনার্থী। যাদের পদচারণায় মুখরিত হয়ে উঠেছে পুরো এলাকাটি। যেখানে কয়েক বছর আগেও মানুষের তেমন কোনো আনাগোনা ছিল না। শুধু দ্বীপের কিছু মানুষ শীতের সময়ে মাঝে মধ্যে ঘুরতে আসতো।

বর্তমানে তরুণদের উদ্যোগে শুধু দেশের পর্যটকদের কাছে নয়, বিদেশি পর্যটকদের কাছে ও প্রাকৃতিক দর্শনীয় জায়গা হিসেবে পরিচিতি পেয়েছে এ স্থানটি।

জনমানবশূন্য কেওড়া বাগানের মাঝ দিয়ে একটি রাস্তা ধরে সামনে এগোলেই সবুজ বিস্তীর্ণ চোখ জুড়ানো খোলা মাঠ- যেখানে গরু, মহিষ, ছাগল ও ভেড়ার পাল ছুটে চলছে নিজেদের মতো করে। আবার মাঠের মধ্য দিয়ে ৫ কিলোমিটার আঁকা-বাকা সরু রাস্তা। এরপর আবারও দেখা মিলবে সবুজ কেউড়া বনের। দূর থেকে মনে হবে বিশাল বিশাল পাহাড় দাঁড়িয়ে আছে।

বাগানের পরেই নয়নাভিরাম ১০ কিলোমিটার বিশাল সমুদ্রসৈকত, যেখানে ছোট বড় ঢেউ এসে আচড়ে পড়ছে বিচে। সূর্য উদয় থেকে শুরু করে অস্ত যাওয়া পর্যন্ত একেক সময় বিচের দেখা যায়, একেক রূপ। দেশীয় বক, শঙ্খচিলসহ অতিথি পাখিরা ব্যস্ত মাছ শিকারে। রুপালি বালির ওপর লাল কাঁকড়ার ছোটাছুটিতে তাদের পায়ের ছাপে সৃষ্টি হচ্ছে আল্পনা, যা দেখে মুহূর্তে হৃদয়ে নেমে আসবে প্রশান্তি। এখানকার প্রকৃতি মুহূর্তে আপন করে নেয় পর্যটকদের।

কমিটির সদস্য আমিনুল এহসান রাসেল জানান, মন্ত্রীর সফরের পর থেকে পর্যটকের সংখ্যা বেড়ে গেছে অনেকগুণ। কেউ পরিবার-পরিজন নিয়ে, কেউ প্রতিষ্ঠানের সহপাঠীদের নিয়ে, কেউ সামাজিক স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের ব্যানার নিয়ে মোটরসাইকেল, সিএনজি ও বড় গাড়িতে করে দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে বনভোজনে আসছেন এখানে। খেলাধুলা, রান্নাবান্না, খাওয়া দাওয়া শেষে প্যান্ডেলে বড় বড় সাউন্ডবক্স লাগিয়ে চলে গান-বাজনা।

বেড়াতে আসা লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার ব্যবসায়ী মো. হোসেন বলেন, সত্যি এটি একটি দেখার মতো জায়গা। একদিকে প্রাকৃতিকভাবে গড়ে ওঠা সি-বিচ, অন্যদিকে গভীর সবুজ কেওড়া বন, কোলাহল মুক্ত পরিবেশ, কোনো ধরনের স্থাপনা না থাকালেও এটি অনেক ভালো লাগছে। পুরো পরিবার নিয়ে এসেছি।

জাহাজমারা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট মাসুম বিল্লা জানান, নিমতলী সমুদ্রসৈকতটি ইতিমধ্যে হাতিয়ার অন্যতম দর্শনীয় স্থানে পরিণত হয়েছে। এখানে যোগাযোগ ব্যবস্থা ও অবকাঠামোগত উন্নয়নে কয়েকটি পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে, যা খুব দ্রুত বাস্তবায়ন হচ্ছে।

২ দিন বন্ধ থাকছে মেরিন ড্রাইভ সড়ক
বাংলাদেশিদের জন্য বিধিনিষেধমুক্ত হচ্ছে বিদেশ ভ্রমণ

আপনার মতামত লিখুন