বুধবার, ২৮ জুলাই ২০২১ | ১৩ শ্রাবণ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
মতামত

মিলন পেরেছে এবং মনে রেখেছে

অনলাইন ডেস্ক
৩০ জুলাই ২০২০

দ্বিতীয়বারের মতো মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক সাংবাদিকতার জন্য মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘর প্রবর্তিত সাংবাদিক বজলুর রহমান স্মৃতিপদক পেলেন সমকালের গাজীপুর প্রতিনিধি ইজাজ আহমেদ মিলন। তাকে অভিনন্দন জানিয়ে ফেসবুকে লিখেছেন সমকালের বিশেষ প্রতিনিধি রাজীব নূর। ফেসবুক স্ট্যাটাসটি হুবহু তুলে ধরা হলো-

মিলন ফোন করে বলল, 'ভাই আমার পুরস্কারে তো আপনারও অংশ রয়েছে।'

'কেমন করে'— জানতে চাইলাম আমি।

ও বলল, 'বুদ্ধি পরামর্শ দিয়ে। এখন আপনাকে কি দিই?'

আমি বলেছি, 'ক্রেস্ট তো আমার লাগবে না। অনেক আছে। তুই বরং ক্যাশ দিয়ে দিস।'

আসলে ওর কাজে আমার তেমন কোনো ভূমিকা নেই। '১৯৭১ : বিধ্বস্ত বাড়িয়ায় শুধুই লাশ' শিরোনামে ১৮ পর্বের ধারাবাহিক প্রতিবেদনের কোনো কোনোটি আমি ছাপার আগে পড়ে দিয়েছি। ওর লেখায় আজকাল হাত না দিলেও চলে। তবু হয়তো এক-আধটু হাত দিয়েছি। পাছে সে ভাবে আমি আসলে পড়িইনি, এই ভয়ে। বোধ হয়, শিরোনামটা চূড়ান্ত করার সময় সে আমার সঙ্গে আলাপ করেছিল।

বহুজনের জন্য এর চেয়ে অনেক বেশি কিছু করেছি, তারা তা অবলীলায় ভুলে গেছে। ভুলে যারা যায়, তাদের কথা ভাবি না আমি। মিলনের মতো মনে রাখে যারা, তাদের জন্য এই কিছু করা।

মিলন দ্বিতীয়বারের মতো এই পুরস্কারটা পেয়েছে। মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘর প্রবর্তিত এ পুরস্কার সে প্রথমবার পেয়েছিল ২০১৫ সালে। একদা আমিও এই পুরস্কারটি পেয়েছিলাম। সাংবাদিকতার গুরু বজলুর রহমানের নামাঙ্কিত এই পুরস্কার পেয়ে নিজে কেমন আপ্লুত হয়েছিলাম, তা এখনো মনে করতে পারি।

সত্যি বলছি, মিলনের এইবারের কাজে আমার তেমন কোনো ভূমিকা নেই। তবে এই মিলনটার হয়ে ওঠার সময় আমি ওকে বুঝতে না দিয়েই লেখালেখির কিছু গূঢ় তথ্য জানিয়ে দিয়েছিলাম। জানালেই সবাই শিখতে পারে না। মিলন পেরেছে এবং মনে রেখেছে।

মিলন, এই যে তুই মনে রাখতে পেরেছিস, এটা অনেক দামি। আমার ক্যাশ-ক্রেস্ট কিছুই লাগবে না। অভিনন্দন Izaz Ahmed Milon

আবারও বজলুর রহমান স্মৃতিপদক পেলেন সাংবাদিক ইজাজ আহমেদ মিলন
উদয় হাকিমের উপস্থাপনায় ঈদে ‘ত্রিবেণী’র ৬ দিনব্যাপী বিশেষ আয়োজন

আপনার মতামত লিখুন