মঙ্গলবার, ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ | ২৫ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
অর্থনীতি

দেশি-বিদেশি ২০০ প্রতিষ্ঠানের পণ্য একসাথে পাচ্ছেন দর্শনার্থীরা

নিজস্ব প্রতিবেদক
২৪ নভেম্বর ২০২২

বিশ্বের সর্বাধুনিক নির্মাণ অবকাঠামো এবং কাঠ ও আসবাবপত্র সংশ্লিষ্ট শিল্পের নতুন উদ্ভাবন, প্রযুক্তি ও পণ্য নিয়ে শুরু হয়েছে তিনদিনের ষষ্ঠ বাংলাদেশ বিল্ডকন, উড এবং ইলেক্ট্রিক্যাল ইন্টারন্যাশনাল এক্সপো ২০২২। ২৪ নভেম্বর বৃহস্পতিবার তিনদিনের এই আন্তর্জাতিক প্রদর্শনীর উদ্বোধন  করেছেন প্রধান অতিথি মাননীয় পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান।

রাজধানীর ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটি বসুন্ধরায় ৬ষ্ঠবারের মতো ‘বাংলাদেশ বিল্ডকন-২০২২’ এর আয়োজন করেছে আস্ক ট্রেড অ্যান্ড এক্সিবিশনস প্রাইভেট লিমিটেড এবং ফিউচারেক্স ট্রেড ফেয়ার অ্যান্ড ইভেন্টস প্রাইভেট লিমিটেড। ২৬ নভেম্বর শেষ হবে তিনদিনের এই প্রদর্শনী।

উদ্বোধনীতে উপস্থিত ছিলেন আস্ক ট্রেড অ্যান্ড এক্সিবিশনস প্রাইভেট লিমিটেডের পরিচালক কে নন্দ গোপাল এবং ব্যবস্থাপনা পরিচালক টিপু সুলতান ভূইঁয়া; বাংলাদেশ ইলেক্ট্রিক্যাল অ্যাসোসিয়েশনের প্রেসিডেন্ট খন্দকার রুহুল আমীন সিআইপি। 

ষষ্ঠ বাংলাদেশ বিল্ডকন, উড এবং ইলেক্ট্রিক্যাল ইন্টারন্যাশনাল এক্সপো ২০২২ এর উদ্বোধন করে পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান। এ সময় তিনি তিনটি প্রদর্শনীতে প্রদর্শিত বৈচিত্রময় পণ্য, উপকরণ এবং যন্ত্রপাতি দেখে মানুষ খুশি হন। এবং এই তিনটি আন্তর্জাতিক বাণিজ্য প্রদর্শনী করার জন্য আয়োজকদের প্রচেষ্টার জন্য প্রশংসা করেন। বিশে^র বিভিন্ন দেশকে আন্তর্জাতিক এ মেলা দেখার জন্য বাংলাদেশে স্বাগত জানিয়ে বলেন, বাংলাদেশ তাদের সঙ্গে ব্যবসা করার জন্য উন্মুক্ত। দেশের অর্থনৈতিক অবস্থা সম্পর্কে জানাতে গিয়ে পরিকল্পনা মন্ত্রী বলেন, সারা বিশে^ও অর্থনৈতিক সংকট চলছে। সেই অনুযায়ী আমরা বেশ ভালো আছি। যেটুকু সংকট আছে তার আগামী মাসের মধ্যেই কেটে যাবে।

তিনদিনের এই প্রদর্শনীতে ‘বাংলাদেশ উড- ২০২২’; ‘বাংলাদেশ বিল্ডকন-২০২২’ এবং ইলেক্ট্রিক্যাল এক্সপো-২০২২- এই তিনটি বিভাগে থাকছে দেশ-বিদেশের ২০০টি প্রতিষ্ঠানের প্রায় দুই হাজারেরও বেশি পণ্য। যেখানে নির্মান শিল্প সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন ম্যাটেরিয়াল, ইকুইপমেন্ট, মেশিনারী এবং প্রযুক্তি তুলে ধরা হচ্ছে। এছাড়া, কাঠ ও আসবাবপত্র শিল্প নিয়ে অন্য প্রদর্শনীতে এ সংশ্লিষ্ট মেশিনারী, হার্ডওয়্যার অ্যান্ড টুলস; ফিটিং অ্যান্ড ফিক্সচার, লেমিনেট, বোর্ড, কোটিং, অ্যাব্রেসিভ অ্যান্ড অ্যাঢেসিভসহ অন্যান্য পণ্য প্রদর্শিত হচ্ছে। 

আয়োজকরা জানান, “বাংলাদেশের নির্মাণ এবং আসবাব শিল্পকে আরো আধুনিকীকরণ এবং এর উৎপাদন বৃদ্ধি ও মানোন্নয়নে সক্ষম করতে আমাদের এই আয়োজন। সেই সাথে বিশ্বের সর্বাধুনিক প্রযুক্তিকে আমাদের স্থানীয় শিল্পের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিতে এ প্রদর্শনীতে বিশ্বের বিভিন্ন দেশ অংশগ্রহণ করছে। এছাড়া, বাংলাদেশে বর্তমানে উল্লেখযোগ্য পরিমাণে বিশ্বমানের আসবাব তৈরি হচ্ছে যা প্রদর্শীনীতে বিশেষভাবে তুলে ধরা হচ্ছে।”  

‘বাংলাদেশ উড- ২০২২’ এ অ্যাসেম্বিং সলুশন্স, ব্রাশ অ্যান্ড রোলারস, অ্যাকসেসরিজ, ক্যারিব্রেটিং অ্যান্ড সেন্ডিং মেশিন, এক্সটেরিয়র ক্ল্যাডিং, কাউন্টারটপ কমপ্যাক্ট, সেন্ডউইচ কমপ্যাক্ট, ল্যাবরেটরি গ্রেড, রেস্টরুম কিউবিকলস ডেকরেডিভ প্যানেলস, প্রি-ল্যামিনেটেড বোর্ডস, ডিজাইন ল্যামিনেটেড শিটস, ডোর ফিটিংস, ডোর স্কিন, ফাসেনারস, ফারনিচার ফিটিংস, হাই-প্রেসার লেমিনেটস, লেগস, লক, টেবল ইক্যুইপমেন্টস, ওয়্যারড্রোব অ্যাকসেসরিজ, কানেকটরস, প্রোফাইল, কিচেন অ্যাকসেসরিজ, প্লাইউড, টিম্বার, রেসিনস ইত্যাদিসহ এ শিল্প সংশ্লিষ্ট প্রয়োজনীয় সব উপকরণ প্রদর্শিত হচ্ছে।

‘বাংলাদেশ বিল্ডকন-২০২২’ প্রদর্শনীতে এসিপি, আর্কিটেকচারাল গ্লাস, অ্যাসফল্ট মিক্স প্ল্যান্টস, বিল্ডিং ম্যাটেরিয়ালস, বাথরুম ফিটিংস অ্যান্ড অ্যাকসেসরীজ, বিল্ডিং স্ট্র্যান্দেনিং সিস্টেম, সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং টেস্টিং ইন্সট্রুমেন্টস, কোল মাইনিং রক বোল্টস, কম্পেকশন মেশিন, কংক্রিট অ্যান্ড বিটুমিন টেস্টিং ইক্যুইপমেন্টস, টাই অ্যান্ড কল রডস, ওয়েজ এয়েল্ডিং টেকনোলজি সহ এ খাত সংশ্লিষ্ট প্রয়োজনীয় অ্যাকসেসরিজ দেখতে পাবেন মেলায় আগতরা।

ইলেক্ট্রিক্যাল এক্সপো-২০২২’তে দর্শণার্থীরা দেখতে পাবেন নির্মাণ শিল্প ও গৃহসজ্জার জন্য বৈদ্যুতিক নানা সরঞ্জামের উপস্থাপন। 

আয়োজকদের মতে, ইভেন্টের উদ্দেশ্য হল বাংলাদেশের আসবাবপত্র, নির্মাণ এবং বৈদ্যুতিক শিল্পগুলিকে বিকল্প সরবরাহকারী খুঁজে বের করা, খরচ অপ্টিমাইজ করা এবং নতুন সমাধান খুঁজে বের করা। আস্ক ট্রেড অ্যান্ড এক্সিবিশনস প্রাইভেট লিমিটেডের এমডি টিপু সুলতান ভূঁইয়া বলেন, “আমরা মহামারী এবং প্রতিক্রিয়ার কারণে একটি ব্যবধানের পরে ব্যবসায় ফিরে আসতে পেরে খুশি এবং পণ্যের প্রদর্শন চিত্তাকর্ষক এইভাবে এটিকে একটি “দেখতে হবে” ইভেন্টে পরিণত করেছে। আস্ক ট্রেড অ্যান্ড এক্সিবিশনস প্রাইভেট লিমিটেডের পরিচালক কে. নন্দগোপাল বলেন, “পরিস্থিতি যেখানে প্রাপ্যতা স্কেচি, খরচ বাড়ছে এবং ডেলিভারি অনিশ্চিত, সেক্ষেত্রে নতুন উৎস সনাক্ত করা এবং খরচ-সঞ্চয় বিকল্পগুলি দেখা গুরুত্বপূর্ণ যা ব্যবসার জন্য জরুরি হয়ে উঠেছে। এইভাবে এই ট্রেড শোগুলি পরিদর্শন করলে সংশ্লিষ্টরা অত্যন্ত উপকৃত হবে”।

ফিউচারেক্স ট্রেডফেয়ার এবং ইভেন্টস প্রাইভেট লিমিটেডের চেয়ারম্যান নমিতা গুপ্ত বলেন, “বাংলাদেশ উড ইন্টারন্যাশনাল এক্সপো দেশের কাঠ ও কাঠের কাজ সেক্টরের জন্য একচেটিয়া প্রযুক্তি ট্রেডশো। ইভেন্টটি এই সেক্টরটিকে উন্নত করতে, সরঞ্জাম সরবরাহকারীদের খুঁজে পেতে এবং বছরের পর বছর ধরে নতুন প্রযুক্তি প্রদর্শনে সহায়তা করছে এইভাবে এই সেক্টরটিকে উৎপাদনশীলতা উন্নত করতে এবং আধুনিকীকরণে সহায়তা করছে”।

বাংলাদেশ ইলেকট্রিক্যাল অ্যাসোসিয়েশন’র প্রেসিডেন্ট খন্দকার রুহুল আমিন সিআইপি বলেন, “দীর্ঘ ব্যবধানের পর আমাদের সদস্যরা একটি ইভেন্টে অংশগ্রহণ করছে এবং আমরা গ্রাহকদের ব্যাপক সাড়া পাওয়ার অপেক্ষায় রয়েছি”।

ষষ্ঠ বাংলাদেশ বিল্ডকন, উড এবং ইলেক্ট্রিক্যাল ইন্টারন্যাশনাল এক্সপো ২০২২ প্রতিদিন সকাল ১১ থেকে রাত ৮ টা পর্যন্ত সর্বসাধারণের জন্য উন্মুক্ত থাকবে। 

রঙ আর আলোর খেলা নিয়ে ভিভো ভি২৫ সিরিজ
সোনালী ব্যাংকের ডিএমডি সুভাস চন্দ্রকে ভিসতা পরিবারের শুভেচ্ছা

আপনার মতামত লিখুন