মঙ্গলবার, ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ | ২৫ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
ইভেন্ট

ওয়ালটন-বিএসপিএ স্পোর্টস কার্নিভালের পুরস্কার বিতরণ

নিজস্ব প্রতিবেদক
১৫ অক্টোবর ২০২২

শনিবার ঢাকার পল্টনের শেখ রাসেল রোলার স্কেটিং কমপ্লেক্সে বাংলাদেশ স্পোর্টস প্রেস অ্যাসোসিয়েশনের (বিএসপিএ) বার্ষিক ক্রীড়া উৎসব ওয়ালটন-বিএসপিএ স্পোর্টস কার্নিভালের পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। এবারের ক্রীড়া আসরে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ১৮ রেটিং পয়েন্ট পেয়ে বিএসপিএর বর্ষসেরা ক্রীড়াবিদ প্রথম রানারআপ হয়েছেন দৈনিক জনকণ্ঠের স্পোর্টস রিপোর্টার রুমেল খান। তিনি টেবিল টেনিস একক ও দ্বৈতে, শুটিং ও আরচারিতে চ্যাম্পিয়ন এবং ব্যাডমিন্টন দ্বৈতে তৃতীয় হন। 

এ নিয়ে রুমেল তৃতীয়বারের মতো বিএসপিএর বর্ষসেরা ক্রীড়াবিদ প্রথম রানারআপ হয়েছেন। এর আগে তিনি ২০১৯ ও ২০২০ সালে এই কৃতিত্ব অর্জন করেন। 

এবারের ওয়ালটন-বিএসপিএ স্পোর্টস কার্নিভালে ৯টি ডিসিপ্লিনের ১২ ইভেন্টে (ইভেন্টগুলো হলো- ক্যারম একক ও দ্বৈত, টেবিল টেনিস একক ও দ্বৈত, ব্যাডমিন্টন একক ও দ্বৈত, দাবা, শ্যুটিং, আরচারি, সাঁতার, কল ব্রিজ ও টোয়েন্টি নাইন)  সর্বোচ্চ রেটিং পয়েন্ট (২০) পেয়ে বিএসপিএর বর্ষসেরা ক্রীড়াবিদ (আব্দুল মান্নান লাডু ট্রফি) মনোনীত হয়েছেন মাহমুদুন্নবী চঞ্চল। দ্বিতীয় রানারআপ হয়েছেন শামীম হাসান (১৬)।

বিএসপিএ সভাপতি সনৎ বাবলার সভাপতিত্বে সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য একেএম শামীম ওসমান। বিশেষ অতিথি ছিলেন ওয়ালটন গ্রুপের সিনিয়র এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর এফএম ইকবাল বিন আনোয়ার (ডন)। আরও উপস্থিত ছিলেন বিএসপিএ সাধারণ সম্পাদক সামন হোসেন। ক্রীড়া উপ-কমিটির চেয়ারম্যান কাজী শহীদুল আলম, সদস্য সচিব ফয়সাল তিতুমীর প্রমুখ। অনুষ্ঠানের শুরুতে এআইপিএ এশিয়ার সদস্য নির্বাচিত হওয়ায় বিএসপিএ সভাপতি সনৎ বাবলাকে সংবর্ধনা দেয়া হয়। 

* বিএসপিএ স্পোর্টস কার্নিভালে ২০১২-২০২২ পর্যন্ত রুমেল খানের ২৩ পদক : ২০১২ সালে টি২০ ক্রিকেটে রানার্সআপ মেডেল, ২০১৪ সালে টেবিল টেনিস এককে চ্যাম্পিয়ন, ২০১৬ সালে টেবিল টেনিসে এককে ও দ্বৈতে চ্যাম্পিয়ন, ২০১৭ সালে টেবিল টেনিস এককে ও দ্বৈতে চ্যাম্পিয়ন, ২০১৮ সালে টেবিল টেনিস এককে তৃতীয় স্থান ও দ্বৈতে চ্যাম্পিয়ন, ২০১৯ সালে ব্যাডমিন্টন দ্বৈতে তৃতীয় স্থান, ম্যারাথনে চ্যাম্পিয়ন, টেবিল টেনিস এককে এবং দ্বৈতে চ্যাম্পিয়ন; ২০২০ সালে টেবিল টেনিস এককে রানারআপ ও দ্বৈতে চ্যাম্পিয়ন, ব্যাডমিন্টন দ্বৈতে চ্যাম্পিয়ন; ২০২১ সালে টেবিল টেনিস এককে ও দ্বৈতে চ্যাম্পিয়ন, শটপুটে তৃতীয় স্থান; ২০২২ সালে টেবিল টেনিস একক ও দ্বৈতে, শুটিং ও আরচারিতে চ্যাম্পিয়ন এবং ব্যাডমিন্টন দ্বৈতে তৃতীয় স্থান। 

২০৩০ সালের মধ্যে ওয়ালটনকে শীর্ষ গ্লোবাল ব্র্যান্ড করার প্রত্যয়
আবারও ঘুরে দাঁড়িয়েছে তিন পার্বত্য জেলার পর্যটনশিল্প

আপনার মতামত লিখুন