শনিবার, ০১ অক্টোবর ২০২২ | ১৬ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
ঘুরে আসি

বৈরী আবহাওয়া উপেক্ষা করে সুন্দরবনে যাচ্ছেন পর্যটকরা

অনলাইন ডেস্ক
১৩ সেপ্টেম্বর ২০২২

বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট নিম্নচাপের প্রভাবে কয়েক দিন ধরে বাগেরহাটের মোংলা ও সুন্দরবন উপকূলে বৈরী আবহাওয়া বিরাজ করছে। বৃষ্টির পাশাপাশি বয়ে যাচ্ছে ঝড়ও। এ অবস্থাতেও সুন্দরবন ভ্রমণে আসছেন পর্যটকরা।

মঙ্গলবার (১৩ সেপ্টেম্বর) ভোর থেকে মোংলা ও সুন্দরবন এলাকায় প্রচণ্ড বৃষ্টি হচ্ছে। পাশাপাশি পশুর নদীও উত্তাল রয়েছে। এরপরও মোংলা বন্দরের পিকনিক কর্নার থেকে বিভিন্ন নৌযানে সুন্দরবনের করমজল পর্যটন ও বন্যপ্রাণী প্রজনন কেন্দ্রে যাচ্ছেন পর্যটকরা।

দুপুরে কিশোরগঞ্জ থেকে করমজলে আসা লিজা বলেন, পারিবারিক নানান কাজে সময় পাওয়া যায় না। তাই সুযোগ পেয়ে পরিবারের সঙ্গে সুন্দরবন ঘুরতে এসেছি। জালিবোটে (নৌযান) করমজলে আসার সময় নদীতে ঢেউ ছিল। ভয়ও কাজ করছিল আবার আনন্দও পাচ্ছিলাম। দেখেছি পশুর নদীর ঢেউ ও সারিসারি জাহাজ (কার্গো, কোস্টার)। আর করমজলে এসে হাঁটু পানির মধ্যেও বনে ঘুরেছি। হরিণ, বানর, কুমির ও কচ্ছপ দেখেছি। আবহাওয়া খারাপ থাকলেও বৃষ্টিতে ভেজা সতেজ গাছপালা ও প্রকৃতি উপভোগ করছি।’

লিজার মতই বিভিন্ন জায়গা থেকে বন্ধুবান্ধব কিংবা পরিবার নিয়ে ঘুরতে আসছেন বনপ্রেমীরা। মঙ্গলবার দুপুর পর্যন্ত করমজলে ৩৫জন পর্যটক এসেছেন। এছাড়া চলমান বৈরী আবহাওয়ার মধ্যেই শুক্রবার আড়াইশ, শনিবার দেড়শ, রোববার দেড়শ ও সোমবার একশর মতো পর্যটক আসেন করমজল পর্যটন কেন্দ্রে।

সুন্দরবন পূর্ব বনবিভাগের করমজল পর্যটন ও বন্যপ্রাণী প্রজনন কেন্দ্রের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. আজাদ কবির  বলেন, দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ার মধ্যেও দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে সুন্দরবনে পর্যটক আসছেন। মঙ্গলবার কিশোরগঞ্জ ও মোংলাসহ আশপাশ এলাকার লোকজন এসেছেন করমজলে। দূর থেকে যারা আসছেন, তারা হয়তো জানতেন না মোংলা ও সুন্দরবন এলাকায় দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়া বিরাজ করছে। না জেনে হয়তো অনেকটা ঝুঁকি নিয়েই নদী পথে ছুটে আসছেন সুন্দরবনে।

এয়ার টিকিটের দাম বৃদ্ধিতে পর্যটনে নেতিবাচক প্রভাব
জর্জিয়ায় ওয়ালটন টিভির ব্র্যান্ড বিজনেস সম্প্রসারণ

আপনার মতামত লিখুন