শনিবার, ০১ অক্টোবর ২০২২ | ১৬ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
ঘুরে আসি

টাঙ্গুয়ার হাওর ভ্রমণে পর্যটকদের মানতে হবে ১০ নির্দেশনা

নিজস্ব প্রতিবেদক
২০ জুলাই ২০২২

বুধবারের (২০ জুলাই) পর রেজিষ্ট্রেশন ছাড়া কোনো নৌযানই টাঙ্গুয়ার হাওরসহ সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলার পর্যটন স্পষ্টগুলোতে বহন করতে পারবে না পর্যটক। গত সোমবার সন্ধ্যায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ রায়হান কবির দিয়েছেন এমন নির্দেশনা।

সেই সাথে নৌযানে ১০টি নির্দেশনা সংবলিত সাইনবোর্ড ও দুটি ময়লা ফেলার ডাষ্টবিন রাখার জন্য অনুরোধ করছেন ইউএনও মোঃ রায়হান কবির ।

উপজেলা প্রশাসন সুত্র মতে, যে সকল নৌযানের মালিক রেজিস্ট্রেশনের জন্য ২০ জুলাইয়ের মধ্যে আবেদন করবেন বা করেছেন তাদেরকে রেজিষ্ট্রেশন সম্পন্নের পূর্বশর্ত হিসেবে ২১ জুলাইয়ের মধ্যে সংযুক্ত ফরম্যাট অনুযায়ী নির্দেশিকা বোর্ড তৈরি করে নৌযানের দৃশ্যমান স্থানে স্থাপনের জন্য অনুরোধ করা হয়েছে। একইসাথে প্রতিটি নৌযানে কমপক্ষে ২টি করে ঢাকনাযুক্ত বড় ডাস্টবিন স্থাপনের জন্যও অনুরোধ করা হলো। পর্যটকবাহী নৌ মালিক, চালক ও পর্যটকের জন্য দশটি করনীয়- নদী, হাওর, বিল, পুকুর, উন্মুক্ত স্থানে কোন ধরনের ময়লা, আবর্জনা ও বর্জ্য ফেলা যাবে না। নৌযানে অবস্থানকালে প্রতিটি নৌযানে সংরক্ষিত ডাকনাযুক্ত ডাষ্টবিনে ময়লা আবর্জনা ফেলতে হবে এবং নিজ দায়িত্ব ময়লা আবর্জনা ফেলতে হবে নির্ধারিত স্থানে। নৌযানে লাউড স্পিকার, মাইক প্রভৃতিসহ শব্দ উৎপাদনকারী কোনো ধরনের বাদ্যযন্ত্র ব্যবহার করা যাবে না। লাইফ জেকেটসহ যথাযথ নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ ব্যতিত ভ্রমন করা যাবে না নৌযানে। বিরূপ আবহাওয়া নৌযানে ভ্রমন করা যাবে না। নৌযানে ধারণ করার ক্ষমতার বাইরে অতিরিক্ত যাত্রী পরিবহন করা যাবে না। নৌযানে পর্যটকদের জন্য মানসম্মত পরিবেশ তথা পরিষ্কার পরিচন্নতা ও পর্যাপ্ত সুবিধা নিশ্চিত করতে হবে। নৌযানে ভ্রমণের সময় কোনো ধরনের অসামাজিক কাজ, অনৈতিক কাজ কিংবা সামাজিক মূল্যবোধের অবক্ষয় ঘটায় এরূপ কার্যাবালী ঘটানো যাবে না।

স্থানীয় এলাকাবাসীর ভাবাবেগ এবং শ্রদ্ধাশীল থাকতে হবে সামাজিক রীতিনীতির প্রতি। অতিরিক্ত ভাড়া গ্রহণ বা অতিরিক্ত ভাড়া গ্রহণ করা যাবে না। নৌযান চলাচলের সময় মালামাল নিজ দায়িত্বে রাখাসহ দুষ্কৃতিকারীদের বিষয়ে সর্তক থাকতে হবে।

তাহিরপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ রায়হান কবির জানান, রেজিষ্ট্রেশন ছাড়া কোনো নৌযানই তাহিরপুর উপজেলায় পর্যটক বহন করতে পারবে না। এ ঘোষণা তাহিরপুরের এবং তাহিরপুরের বাইরের সকল নৌযানের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য। নির্ধারিত তারিখের পর যাদের কাছে রেজিষ্ট্রেশন থাকবে না তাদের বিরুদ্ধে গ্রহণ করা হবে কঠোর পদক্ষেপ।

পর্যটক প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা: নিজস্ব রূপে ফিরেছে সুন্দরবন
লাউয়াছড়ায় মাত্রাতিরিক্ত পর্যটক: হুমকিতে বন ও বন্যপ্রাণী

আপনার মতামত লিখুন