বৃহস্পতিবার, ০৯ জুলাই ২০২০ | ২৫ আষাঢ় ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
গাঁও গেরাম

বিপর্যয়ে পর্যটন শিল্প, কক্সবাজারে ৪০ হাজার কর্মচারী ‘বেকার’

কক্সবাজার প্রতিনিধি
০১ জুন ২০২০

মান লকডাউনে চরম বিপর্যয় নেমে এসেছে কক্সবাজারের পর্যটন শিল্পে। গত দু’মাস ধরে পর্যটক আসা বন্ধ থাকায় কর্মহীন হয়ে পড়েছেন সাড়ে চারশ হোটেল, মোটেল, গেস্ট হাউস ও রিসোর্টের ৪০ হাজারের বেশি শ্রমিক-কর্মচারী।

গত দু’মাসের বেতনসহ ঈদ বোনাস না পেয়ে চরম মানবেতর জীবনযাপন করছেন তারা।

একেবারে পর্যটক শূন্য বিশ্বের দীর্ঘতম সমুদ্র সৈকত কক্সবাজার। নেই পর্যটকদের কোনো কোলাহল। অথচ প্রতিবছর ঈদের ছুটিতে ছুটে আসেন লাখো পর্যটক। সাজানো হয় হোটেল, মোটেল ও রিসোর্টগুলো। বুকিং হয় শতভাগ রুম।

কিন্তু এবার বাস্তবতা খুবই রুঢ়। করোনার সংক্রমণ প্রতিরোধে গত দু’মাসের বেশি সময় ধরে বন্ধ সাড়ে চার শতাধিক হোটেল, মোটেল ও রিসোর্ট। ফলে কর্মহীন হয়ে মানবেতর জীবনযাপন করছেন হাজার হাজার শ্রমিক ও কর্মচারী।

এ অবস্থায় নীতিমালা করে পর্যটন শিল্পকে রক্ষায় কক্সবাজারের হোটেল, মোটেল ও রিসোর্টগুলো খুলে দেয়ার দাবি পর্যটন সংশ্লিষ্টদের।

হোটেল গেস্ট হাউস অফিসার্স অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক কলিম উল্লাহ বলেন, কিছু কিছু হোটেলে দু-একজন ছাড়া সবাইকে বের করে দিয়েছে। এপ্রিল মাসের বেতন পায়নি।

হোটেল ওনার্স অ্যাসোসিয়েশনের মুখপাত্র মো. এনায়েত উল্লাহ বলেন, নো সেইল অবস্থায় আছে হোটেলগুলো। কিভাবে যাবে এরকম বোঝা যাচ্ছে না।

স্থানীয় চেম্বার অব কমার্সের তথ্য মতে, লকডাউনে জেলার পর্যটন শিল্পে প্রতিদিন ক্ষতি হচ্ছে ৬০ কোটি টাকা।

করোনাভাইরাস সংকটে বিশ্ব পর্যটনের খতিয়ান
করোনাভাইরাসের প্রভাবে বিপর্যস্ত পর্যটন অর্থনীতি

আপনার মতামত লিখুন