সোমবার, ০৮ মার্চ ২০২১ | ২৪ ফাল্গুন ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
সীমানার ওপারে

যুক্তরাজ্যে সব ধরণের ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা

অনলাইন ডেস্ক
১৬ জানুয়ারি ২০২১

করোনাভাইরাসের নতুন  ঝুঁকি থেকে রক্ষা পেতে সোমবার থেকে যুক্তরাজ্যের সমস্ত ভ্রমণ করিডোর বন্ধ ঘোষণা করেছেন প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। যুক্তরাজ্যের বাইরে থেকে কেউ আসতে হলে তাকে যাত্রা করার ৭২ঘণ্টা আগে করোনা পরীক্ষা করে নিয়ে নেগেটিভ সনদ দেখাতে হবে।

সোমবার থেকে ব্রিটেনের আকাশপথ, নৌ-পথ, স্থলপথসহ সকল ভ্রমণ করিডোর সারাবিশ্বের সাথে বন্ধ থাকবে। এই নিয়ম আগামী ১৫ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত কার্যকর থাকবে।

প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, সমস্ত দেশের ভ্রমণকারীদের অবশ্যই পূর্ববর্তী ৭২ ঘণ্টার মধ্যে নেওয়া নেতিবাচক করোনা পরীক্ষার সার্টিফিকেট সাথে রাখতে হবে এবং সেল্ফ আইসোলেশনের ৫ দিন পর অবশ্যই অন্য একটি পরীক্ষা দিতে হবে। সেই পরীক্ষায় নেগেটিভ হলে ভালো আর পজিটিভ হলে আবারও আইসোলেশনে থাকতে হবে।

করোনাভাইরাস বিশেষজ্ঞরা দেশের অভ্যন্তরে নতুন বেশিষ্ট্যের করোনা শনাক্ত করার পর এমন কঠিন সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। সরকার মনে করে যে কোন উপায়েই হোক করোনাভাইরাস মোকাবিলা করতে হবে। সেই হিসেবে যোগাযোগ বিছিন্ন করা এবং ঘরে থাকাই হচ্ছে একমাত্র পথ।

নতুন এই করোনাভাইরাস একটি ব্রাজিল থেকে শুরু হয়েছিল এবং অন্যটি দক্ষিণ আফ্রিকার মধ্যে পাওয়া গেছে। সনাক্ত  করা হয়েছে ব্রিটেন থেকে ।

প্রধানমন্ত্রী আজ ডাউনিং স্ট্রিট সংবাদ সম্মেলনে বলেছিলেন, আমাদের এই টিকার আশা এবং বিদেশ থেকে নতুন স্ট্রেনের ঝুঁকি রয়েছে যে, আমাদের এই স্ট্রেনগুলো দেশে প্রবেশ বন্ধ করতে এখনই অতিরিক্ত পদক্ষেপ নিতে হবে।

তিনি আরো বলেন, গতকাল আমরা ঘোষণা দিয়েছিলাম যে, দক্ষিণ আমেরিকা এবং পর্তুগাল থেকে ফ্লাইটগুলো নিষিদ্ধ করছি। অজানা অচেনা প্রবণতা ঝুঁকি থেকে রক্ষা করতে আমরা সোমবার থেকে সাময়িকভাবে সমস্ত ভ্রমণ করিডোরও বন্ধ করা হবে। যাতে কেউ কেউ যেতেও পারবেন না,  এবং রোগ নিয়ে আসতেও পারবেন না। সকল প্রশাসন এক সাথে কাজ করবেন এবং পুরো ব্রিটেনে সোমবার থেকে নতুন আইন কার্যকর হবে।

আরব আমিরাতে ভ্রমণ ভিসায় দূতাবাসের সুপারিশ লাগবে না
প্রথম দিনেই মুসলিম দেশগুলোর ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা বাতিল

আপনার মতামত লিখুন